মেয়েরা রাফ সেক্স সবচেয়ে বেশি পছন্দ করেন!

জানুয়ারি ২৮, ২০১৬, ৪:০০ অপরাহ্ণ
সময়ের কথা ডেস্ক : “রাফ সেক্স” বিষয়টি আসলে একটু অন্যরকম, শুদ্ধ বাংলায় বলতে গেলে রাফ সেক্স হচ্ছে অমার্জিত যৌন আচরণ। ব্যাখ্যা করে বললে বলতে হয়, অনেকে যেমন মিষ্টি ও রোম্যান্টিক যৌন মিলনকে প্রাধান্য দিয়ে থাকেন। তার ঠিক বিপরীতটাই হচ্ছে রাফ সেক্স।

একটু উন্মাদনা, নতুন ধরনের কিছু করা, তীব্র উত্তেজনা ও প্রবল যৌন ক্রিয়া, এটাই হচ্ছে রাফ সেক্সে। রাফ সেক্স আসলে কাউকে শেখানো যায় না, তবে হ্যাঁ কিছু ব্যাপার আছে যেগুলো রাফ সেক্সের অন্তর্ভুক্ত। বিশেষ সে যৌন আচরণগুলোই রাফ সেক্সের অন্তর্ভুক্ত এবং অনেক মহিলাই (বিশেষ করে অতি সুন্দরী মহিলারা) এই সব যৌন আচরণ সবচেয়ে বেশি পছন্দ করে থাকে।

যৌন আচরণে একটু বল প্রয়োগের ব্যাপারটি নিয়ে কথা বলা যাক। ধরুন, হুট করে প্রেমিকাকে কাছে টেনে নিয়ে আগ্রাসী চুমু খেলেন, বা জোর করে জাপটে ধরে আদর করা শুরু করলেন। অনেক মহিলাই মুখে না না বললেও আসলে ব্যাপারটি উপভোগ করেন।

images.sk.m

ব্যথা এবং আনন্দ পাশপাশি চলে। তবে কখনওই খুব বেশি ব্যথা দিতে যাবেন না। এতে যৌন উত্তেজনা নষ্ট হয়ে যাবে। রাফ সেক্সের Rough Sex ক্ষেত্রে আস্তে আস্তে বাড়াতে হয় আদরের তীব্রতা। আদরের সময় মহিলার নিতম্বে হালকা চড় মারাটা মিলনের সময় পরিণত হতে পারে জোরে চড় মারায়। বিষয়টি অনেক মহিলাই ভীষণ ভালোবাসেন।

লাভ বাইট বা কামড়ে দাগ ফেলে দেওয়ার ব্যাপারটিও রাফ সেক্সে অপরিহার্য। স্পর্শকাতর স্থানগুলিতে হালকা চুম্বন দিয়ে শুরু করুন। আস্তে আস্তে বাড়ান আদরের তীব্রতা। কানের লতি, ঘাড়, স্তন এসব স্থানে পরিমিত কামড় মহিলারা উপভোগ করেন।

তাঁর দুটি হাত নিজে ধরে রাখুন, তারপর ইচ্ছেমত আদর করুন। যৌন মিলনের সময়েও এমন করতে পারেন। এটাও নারীরা উপভোগ করেন। সাথে হালকা চুল টেনে দেওয়া, গালে কামড়ে দেওয়া, তাঁকে আপনি প্রবলভাবে কামনা করছেন সেটি বুঝিয়ে দেওয়াও দারুণ উপভোগ্য।

রাফ সেক্সকে আনন্দময় করতে তুলতে নানান রকম উপাদানেরও ব্যবহার করা যেতে পারে। যেমন নিজেদের ফ্যান্টাসি অনুযায়ী কস্টিউম পরা, পোল ড্যান্স কিংবা আপনার পছন্দের যে কোনও কিছু। এটা নিজের ফ্যান্টাসিকে এনজয় করার ব্যাপার।

একটা বিষয় মনে রাখবেন, রাফ সেক্স মানে এই নয় যে পরস্পরকে সহন ক্ষমতার বাইরে ব্যথা দেওয়া। সঙ্গী কতটুকু সইতে পারবেন, সেটা মাথায় রাখুন। সেই হিসাবেই ধাপে ধাপে অগ্রসর হন। পুরুষের কাজটি হচ্ছে সেটি বুঝে নিয়ে যৌন ক্রিয়াকে আনন্দময় করে তোলা।

 
Print Friendly, PDF & Email

সংবাদটি পড়া হয়েছে ৬৫৪৩ বার

( বি: দ্র: সময়ের কথা টোয়েন্টিফোর ডটকম -এ প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও, কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। কপিরাইট © সকল সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত সময়ের কথা টোয়েন্টিফোর ডটকম )

আপনার ফেসবুক একাউন্ট ব্যবহার করে মতামত প্রদান করতে পারেনঃ