×
  • প্রকাশিত : ২০২২-১২-০৪
  • ৮১ বার পঠিত
 হেলাল উদ্দিন, বাগমারা: আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, ‘রাজশাহীতে বিএনপি সেমিফাইনাল খেলার ঘোষণা দিয়েছিল, সাত দিন চেষ্টা করেও তেমন লোক জড়ো করতে পারেনি। আমরা ড্রোনে তোলা ছবিতে দেখেছি, বিএনপির সমাবেশের মাঠ ছিল ফাঁকা ফাঁকা। এই বাহাদুরি নিয়ে আগামী ১০ ডিসেম্বর ঢাকায় গিয়ে ফাইনাল খেলবেন এবং তারপর থেকে আপনাদের (বিএনপি) কথামতো দেশ চলবে-এটি মুর্খের স্বর্গে বাস করা ছাড়া আর কিছুই নয়। বিএনপির এই স্বপ্ন কখনো পূরণ হবে না। ১০ ডিসেম্বর আমাদের নেতাকর্মীরা প্রস্তুত থাকবেন, বিএনপি কোন অরাজকতা সৃষ্টি করতে চাইলে তাৎক্ষণিক দাতভাঙ্গা জবাব দেওয়া হবে।

গতকাল রোববার দুপুরে রাজশাহী জেলা কৃষক লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। দীর্ঘ ৭ বছর পর উৎসব মুখর পরিবেশে জেলার বাগমারা উপজেলার ভবানীগঞ্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। শুরুতে জাতীয় সঙ্গীতের সঙ্গে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন এবং বেলুন-ফেস্টুন ও পায়রা উড়িয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন করা হয়। এরপর পরিবেশিত হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও গম্ভীরা। সম্মেলনের উদ্বোধন ঘোষণা করেন কৃষক লীগের সভাপতি সমীর চন্দ। প্রধান বক্তা বক্তব্য দেন সাধারণ সম্পাদক উম্মে কুলসুম স্মৃতি এমপি।

সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, আওয়ামী লীগ জনগণের রায়ে ক্ষমতায় আছে। আমরা কারো দয়ায় ক্ষমতায় নেই। বিশে^র উন্নত দেশে যেভাবে ক্ষমতাশীন সরকার ক্ষমতায় থেকে নির্বাচন কমিশনের মাধ্যমে নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হয়, সেইভাবে বাংলাদেশে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আগামী নির্বাচনে বিএনপি যদি না আসে তাহলে, বিএনপিকে তার খেসরাত দিতে হবে।

লিটন আরো বলেন, তারেক জিয়া লন্ডনে বসে দিনের পর দিন ষড়যন্ত্র-চক্রান্ত করে যাচ্ছে। একজন সাবেক প্রধানমন্ত্রীর ছেলে, যিনি নিজেও প্রধানমন্ত্রী হওয়ার স্বপ্ন দেখেন, যে স্বপ্ন কোনদিন পূরণ হবে না। সেই তারেক জিয়া বিশ^কাপ ফুটবলে বড় জুয়াড়ি হিসেবে নিজের নাম লিখিয়েছে, এটা কতবড় লজ্জার।

জেলা কৃষক লীগের আহবায়ক অধ্যক্ষ তাজবুল ইসলামের সভাপতিত্বে সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সদস্য বেগম আখতার জাহান, জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অনিল কুমার সরকার, কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি আব্দুল লতিফ তারিন, রাজশাহী-৪ আসনের এমপি এনামুল হক, সাবেক প্রতিমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা জিনাতুন নেসা তালুকদার, রাজশাহী-৫ আসনের এমপি ডা. মনসুর রহমান, সংরক্ষিত নারী আসনের এমপি আদিবা আঞ্জুম মিতা প্রমুখ।

সম্মেলনে রাজশাহী জেলা কৃষক লীগের নতুন কমিটির সভাপতি হিসেবে তাজবুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক হিসেবে ওয়াজেদ আলী ও সহ-সভাপতি বিমল সরকারকে মনোনীত করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...
ক্যালেন্ডার...

Sun
Mon
Tue
Wed
Thu
Fri
Sat