×
  • প্রকাশিত : ২০২৩-০১-২০
  • ২৮ বার পঠিত
বিনোদন ডেস্ক : কনম্যান সুকেশ চন্দ্রশেখরের নজরে ছিলেন বলিউড আইটেম গার্ল নোরা ফাতেহিও। বিলাসবহুল গাড়ি-বাড়ির বদলে প্রেমিকা হওয়ার প্রস্তাব করা হয়েছিল তাকে। সম্প্রতি নিজের জবানবন্দিতে এমনটাই জানান নোরা।

সুকেশকে তিনি চিনতেন না, সামনাসামনি কখনও আলাপও হয়নি তাদের। প্রথমবার সুকেশকে সরাসরি দেখেন প্রতারণা মামলার তদন্ত চলাকালীন এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি) এর দফতরে। মধ্যস্থতাকারী পিঙ্কি ইরানির মাধ্যমে নোরার এক ভাইয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করেন সুকেশ। আদালতে দেওয়া জবানবন্দিতে এমনটাই দাবি করেন ‘দিলবার’ কন্যা। ২০০ কোটি টাকার যে আর্থিক জালিয়াতির মামলায় সুকেশ অভিযুক্ত, সেই মামলায় প্রতারণার শিকার হয়েছেন তিনি নিজেও— দিল্লির পাতিয়ালা হাউস কোর্টে জানান নোরা।


পিঙ্কি ইরানি তাকে বলেছিল, সুকেশের জন্য লাইনে দাঁড়িয়ে আছেন জ্যাকলিন ফার্নান্দেজ। কিন্তু প্রেমিকা হিসেবে নোরাকেই নাকি চান সুকেশ। এদিন আদালতে দেওয়া জবানবন্দিতে বিস্ফোরক তথ্য ফাঁস করেন নোরা। তার দাবি, ‘বলিউডে এমন অনেক নায়িকা আছেন, যারা সুকেশের সঙ্গ পাওয়ার জন্য অপেক্ষা করে আছেন।’

যদি সুকেশের সঙ্গে পরিচয়ই না থাকে তবে কেন তার কাছ থেকে বিলাসবহুল গাড়ি উপহার নিয়েছিলেন? ইডির এমন প্রশ্নে নোরা জানান, সুকেশ নন, পিঙ্কি ইরানি চেন্নাইয়ের এক অনুষ্ঠানের পারিশ্রমিক হিসেবে তাকে বিএমডব্লিউ উপহার দিয়েছিলেন। সুকেশ যে একজন ঠগবাজ এবং ২০০ কোটি টাকা জালিয়াতির মামলায় জড়িত তা ইডির গ্রেফতারির পরেই জানতে পেরেছিলেন তিনি।

বুধবার দিল্লির পাতিয়ালা হাউস কোর্টে মুখ খোলেন জ্যাকলিন। তিনি বলেন, ‘সুকেশ আমাকে ভুল পথে চালিত করেছে। আমার ক্যারিয়ার শেষ করে দিয়েছে। আমার জীবন বিপর্যস্ত করে দিয়েছে।’ এছাড়া সুকেশ নিজের পরিচয় গোপন রেখে তার সঙ্গে প্রতারণা করেছে বলেও জানান জ্যাকলিন। 

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...
ক্যালেন্ডার...

Sun
Mon
Tue
Wed
Thu
Fri
Sat